বিচ্ছেদের পর এখন বাংলাদেশি ছে’লেকে বিয়ে করতে চান মধুমিতা

অ’ভিনেত্রী মধুমিতা সরকার বেশ কয়েকমা'স ধ'রে সামাজিক যো'গাযোগ মাধ্যমে সরব। প্র'তিদিনই এ'কাধিক ‘আবে’দনময়ী’ ছবি পোস্ট করেন ফেস’বুক-ই’নস্টাগ্রা'মে। আর তাতেই

দুই বাংলার তরুণরা বুঁ’দ হয়ে পড়েছেন! মধুমিতা সরকারের নতুন ছবি মা'নেই ভুরি-ভুরি রি’য়্যাকশন, কমেন্ট এবং শেয়ার। তার ভ’ক্ত'দের মধ্যে বড় একটা অংশ

এদেশের কাউকে বি'য়ে করতে চান! তবে বি'ষয়টি নিচকই মজা করে ব'লেছেন এ অ’ভিনেত্রী! তবে এ ক'থা একেবারেই ফে'লে দেয়ার মতো না। ২০১৫ সালে

প্রা’ণ পৃথিবীতে আ'সার আ'গে আম’রা আলাদা হয়ে গেছি সেটাই স’বথেকে বড় বি'ষয়।বাংলাদেশে আ'পনার অনেক ফলোয়ার; যদি নতুন স’ম্প'র্ক গড়ার

এদিকে ভা’রতীয় এ শিল্পী ২০১৬ সালে আ'গস্টে বাংলাদেশের একটি টেলিছবি'তে কাজ করেছেন। ভা’রতের মা'নালিতে এর কাজ হয়েছে; নাম ‘‌মে'ঘবালিকা’।

এতে তিনি মোশাররফ করিমের বি’প'রীতে অ’ভিনয় করেছেন। ম'হিউদ্দীন আ'হমেদের রচনায় এটি নি'র্মাণ করছেন প'রিচালক পারভেজ আমিন। স'ম্প্র'তি মৈনাক ভৌমিকের চলচ্চিত্র ‘

চিনি’র কাজ শেষ করেছেন মধুমিতা। শিগগিরই হইচই সিরিজে ‘দেবদাস ও একটি খু-নের গ'ল্প’তে কাজ করবেন তিনি। এতে তার বি’প'রীতে থাকছেন অর্জুন। যার স’ঙ্গে চলছে নায়িকার প্রে’মের গু’ঞ্জ'ন।সকালে উপহার বিকালে দুই র‌্যা’­ব সদস্যকে ভা’রতে ধ'রে নিয়ে গেছে বিএসএফ!

নাজপুরের চিরিরবন্দর উ'পজে’লার বি-আমতলী সরস্বতীপুর সীমা'ন্তে অ’ভিযানে যাওয়া দুই র‌্যা’­ব সদস্যকে আ’ট’ক করে নিয়ে গেছে ভা’রতীয় সীমা'ন্তরক্ষী বা'হিনী (বিএসএফ)।

এ ঘ'টনায় বি'জিবি'র পক্ষ থেকে পতাকা বৈঠকের জ'ন্য বিএসএফের কাছে চিঠি পাঠানো হয়েছে।গতকাল মঙ্গলবার (১০ নভেম্বর) দুপুর ২টার দিকে ওই সীমা'ন্তের মেই’ন পি'লার ৩০৭,

সাব-পি'লার-১-এর কাছ থেকে তাদের আ’ট’ক করে নিয়ে যায় বিএসএফ। আ’ট’ককৃতরা হলেন, র‌্যা’­ব-১৩ দিনাজপুর সিপিসি-১-এর স'হ-অধিনায়ক (এএসপি)

শ্যামল চং ও কনস্টেবল আবু বকর সিদ্দিক।স্থানীয়রা জা'নান, গো’পন সংবাদের ভিত্তিতে বি-আমতলী সরস্বতীপুর সীমা'ন্তের স'মজিয়া মণ্ড'লপাড়া এ'লাকায় মা’দকের

বি’রুদ্ধে মোটরসাইকেলযোগে সিভিল পোশাকে অ’ভিযানে যায় ৫ জ'ন র‌্যা’­ব সদস্য। দু’টি গ্রুপে বিভক্ত হয়ে তারা অ’ভিযানে নামে। এক গ্রুপে তিন জ'ন,

অন্য গ্রুপে দুই জ'ন। অ’ভিযানের একপ'র্যায়ে তারা ভু’ল করে ভা’রতের একটি গ্রা'মে ঢু'কে পড়ে এবং সেখান থেকে ৩ জ'ন র‌্যা’­ব সদস্য ভা’রতীয়

নাগরিক ইস’রাফিলের ছে’লে মি’লনকে আ’ট’ক করে।এ স'ময় মি’লন চি’ৎকার শুরু করে। তখন মোশাররফ মা'স্টার ও হিরোস'হ কয়েকজ'ন মি’লনকে ছিনিয়ে নিয়ে র‌্যা’­ব

সদস্যদের ও’প'র হা’মলা চা’লায়। এ স'ময় সেখানে থাকা ৩ জ'ন র‌্যা’­ব সদস্য এক রাউন্ড গু’লি ছুড়ে কৌশলে পা'লিয়ে আসে। গু’লির শব্দ শুনে অ’প'র প্রান্তে থাকা

দুই র‌্যা’­ব সদস্য স’ঙ্গীদের উ’দ্ধা'রে এগিয়ে যায়। ততক্ষণে ঘ'টনাস্থলে এসে বিএসএফ সদস্যরা স্থানীয় জ'নগণের স'হায়তায় ওই দুই র‌্যা’­ব সদস্যকে আ’ট’ক করে তাদের