ভা’রতীয় সিরিয়াল, হিন্দি গান আমাদের সংস্কৃতিতে আ’ঘাত হানছেঃ তথ্যমন্ত্রী

ঘুড়ি উৎস’ব পুরান ঢাকার ঐতিহ্যের পাশাপাশি দেশের ঐতিহ্য ব'লে মন্তব্য করে তথ্যম'ন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম স'ম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ ব'লেছেন, আমাদের আবহমা'ন সংস্কৃতির অংশ হচ্ছে ঘুড়ি উৎস’ব। কিন্তু আকাশ সংস্কৃতির হিংস্র থাবায় আমাদের অনেক সংস্কৃতি এখন হু’মকির মুখে।

আমাদের দেশে আ'গে বি'য়ে ও গায়ে হলুদ উৎস’বে দেশের গান গাওয়া হতো। আমাদের ছে’লে-মে’য়েরা বাংলার সাজসজ্জা নিয়েই হাজির হতো। কিন্তু ধীরে ধীরে বদলে যা'চ্ছে। এখন এস’ব উৎস’বে বাংলা গান না হয়ে হিন্দি গান হয় এবং সেখানে সাজগোজও ভা’রতীয় সিরিয়াল দে'খে বদলে যা'চ্ছে। এগুলো আমাদের সংস্কৃতিতে প্রচণ্ড আ’ঘাত হা'নছে। তাই আমাদের সংস্কৃতিকে ধ'রে রাখতে হবে।

আজ বৃহস্পতিবার (১৪ জানুয়ারী) পুরান ঢাকার গেণ্ডারিয়ার ধুপখোলা মাঠে ঢাকা সাং'বাদিক ফোরাম আয়োজিত সাকরাই’ন উৎস’বের উদ্বোধনী অ'নুষ্ঠানে তথ্যম'ন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এ ক'থা ব'লেন।

তথ্যম'ন্ত্রী ব'লেন, আমাদের স'ময় কি’শোর-তরুণ স’বাই ঘুড়ি উড়িয়েছে। কিন্তু বর্তমা'নে ঘুড়ি উড়ানোর সু'যোগ বড় শহরে কমে গেছে। ঢাকা ও চট্টগ্রা'মের মতো বড় শহরগুলোতে খে'লার মাঠ সেভাবে নেই। ছাদে উঠে ঘুড়ি উড়ানোর বি'ষয়টাও অনেকাংশে সঙ্কুচিত হয়ে গেছে। যে কারণে আমাদের তরুণরা এখন আর ঘুড়ি উড়াতে পারে না।

তথ্যম'ন্ত্রী আরও ব'লেন, এ ঘুড়ি উড়ানোর মধ্যে যে কি মজা ও উ’ত্তে’জ'না সেটা আসলে যারা ঘুড়ি উড়াননি তারা বুঝতে পারবেন না। এজ'ন্য আমি ধন্যবাদ জা'নাই এ উৎস’ব যারা আয়োজ'ন করেছেন তাদের। আসলে আমাদের সংস্কৃতিকে ধ'রে রাখার জ'ন্য অ’ত্যন্ত গু’রুত্বপূর্ণ ব'লেও জা'নান ড. হাছান মাহমুদ।