ক্যা’নসারের বি’রুদ্ধে লড়তে সক্ষ’ম কাঁচা মরিচ!

কাঁচা মরিচ শ’রীরের জন্য ভীষণ উপকারী। বাঙালির রান্নায় ঝাল ও স্বাদের জন্য খাবারের অপ’রিহার্য উপকরণ হচ্ছে কাঁচা মরিচ। কাঁচা মরিচের ঝাল খাবারের স্বাদ বা’ড়ানোসহ রয়েছে নানা ঔষধি গু’ণাগুণ।

চিকি’ৎসকদের মতে, কেবল স্বাদ বাড়াতেই নয়; কাঁচা মরিচের রয়েছে বেশ কিছু স্বা’স্থ্যকর দিকও। তবে অ’তিরিক্ত ঝাল খা’দ্যনালীর ক্ষ’তি করে। তবে পরিমাণমতো কাঁচা মরিচের অনেক ভালো দিক রয়েছে।

হ’জমে মহৌষধের মতো কাজ করে কাঁচা মরিচ। রান্নায় তেল-মশলার ঝালের পরিমাণ কমিয়ে দিন। হ’জমের স’মস্যা থাকবে না। কাঁচা মরিচে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ রয়েছে। যা আমাদের হাড়, দাঁত ও মিউকাস মেমব্রেনকে ভাল রাখতে সাহা’য্য করে।

কাঁচা মরিচে থাকা ভিটামিন সি ত্বকের জন্য খুবই উপকারি। ফলে মুখের বলিরেখা পড়তে দেয় না। কাঁচা মরিচে অ্যা’ন্টিঅক্সিড্যান্ট সমৃদ্ধ। ফলে জ্বর, সর্দি-কাশি ইত্যাদি থেকে বাঁ’চায়। রো’গ প্র’তিরো’ধ ক্ষ’মতাও বাড়ায়।

প্রস্টেট ক্যা’নসারে ঝুঁ’কি কমায় কাঁচা মরিচ। স্না’য়ুরো’গ নিরাময় ও দী’র্ঘমে’য়াদি স্না’য়বিক অসুখের পথ্য হিসাবে কাজ করে। কাঁচা মরিচ খেলে ম’স্তিষ্কে সুখী হরমোন এনডরফিন নিঃসৃ’ত হয়।

ক্যা’নসারের বিরু’দ্ধে ল’ড়তে স’ক্ষম কাঁচা মরিচ। এর অ্যা’ন্টিঅক্সিড্যান্ট উপাদান বিভিন্ন ক্রনিক অসুখ ও সংক্র’মণ থেকেও শ’রীরকে দূ’রে রাখে।