টি-২০ বিশ্বকাপ থেকে সরে দাঁড়ালেন তামিম

আর মাত্র কিছুদিন পরই মাঠে গড়াবে টি-২০ বিশ্বকাপ। প্রায় সব দলই নিজেদের শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি সারতে ব্যস্ত। এর মাঝেই বড় ঘোষণা দিলেন জাতীয় দলের ওপেনার তামিম ইকবাল খান। বিশ্বকাপের দল থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন তিনি নিজেই।

বুধবার দুপুরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এক ভিডিওবার্তার মাধ্যমে এ ঘোষণা দেন তামিম।

২০১৮ সালের পর থেকে গত পৌনে তিন বছরে টি-২০ ফরম্যাটে সব মিলিয়ে মাত্র তিনটি ম্যাচ খেলেছেন বাঁহাতি এই ওপেনার। এছাড়া ইনজুরি আরেকটি কারণ ছিল। মূলত এসব কারণে নিজেকে বিশ্বকাপ দল থেকে সরিয়ে নিয়েছেন তিনি।

ভিডিওবার্তায় তামিম বলেন, আসসালামু আলাইকুম সবাইকে। আশা করি সবাই ভালো আছেন। আপনাদের জন্য ছোট একটি অ্যানাউন্সমেন্ট ছিল। কিছুক্ষণ আগে আমি বোর্ড প্রেসিডেন্ট পাপন ভাই ও চিফ সিলেকটর নান্নু ভাইকে ফোন করে কথা বলেছিলাম। আপনাদের সঙ্গে এখন সেই ব্যাপারটাই শেয়ার করতে চাই।

তিনি আরো বলেন, আমি উনাদেরকে বলেছি যে আমার মনে হয় না আমার বিশ্বকাপের দলে থাকা উচিত। এটার দুই-তিনটি কারণ আছে। আমার কাছে মনে হয় গেম টাইম অন্যতম বড় কারণ। এই ফরম্যাটে বেশ কয়েকদিন ধরেই খেলছি না। দ্বিতীয় কারণ ইনজুরি। যদিও আমার মনে হয় বিশ্বকাপের আগেই ফিট হয়ে যেতাম।

দেশসেরা ওপেনার এরপর বলেন, কিন্তু মূল যে কারণে আমি এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি সেটি হচ্ছে আমি শেষ ১৫-১৬টি টি-২০ ম্যাচ খেলিনি। আর আমার জায়গায় যারা খেলেছে, আমি হঠাৎ করে এসে তাদের জায়গা নিয়ে নিলে এটা ঠিক হবে না। হয়তো আমি বিশ্বকাপের দলে থাকতাম। আমি জানি না তবে মনে হয় আমি থাকতাম। কিন্তু এটা ঠিক হতো না।

এরপর তামিম বলেন, এ কারণে আমি বোর্ড প্রেসিডেন্ট ও নির্বাচকদের বলে দিয়েছি যে আমাজে আপনারা বিশ্বকাপে দেখবেন না। আমি এতটুকুই বলতে পারি যে এই সিরিজ ও বিশ্বকাপের জন্য দলের প্রতি শুভকামনা।

তবে এখনই টি-২০ ফরম্যাট থেকে অবসর নেননি তামিম। এ বিষয়ে তিনি বলেন, আমি এখানে আরেকটি বিষয় জানাতে চাই আর সেটা হচ্ছে আমি অবসর নিচ্ছি না। তবে সম্ভবত বিশ্বকাপে আমার খেলা হবে না। আমার মনে হয় যারা বর্তমানে ওপে করছে ওদের আরো সুযোগ দেওয়া উচিৎ। ওরা আমার চেয়ে ভালোভাবে তৈরি।

এরপর সবাইকে অনুরোধ জানিয়ে তামিম বলেন, দয়া করে কেউ ফোন বা মেসেজ দেবেন না। আমি আমার সিদ্ধান্তে অটল থাকতে চাই। সবাই আমার গোপনীয়তা রক্ষা করবেন ও আমার সিদ্ধান্তকে সম্মান জানাবেন এটাই আশা করি। এখানে কোনো কন্ট্রোভার্সি নেই। আমি যা করি হৃদয় থেকে করি। আমার মনে হয়েছে এটাই সঠিক সিদ্ধান্ত। তাই এটা ঠিক করেছি।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*