এবার ট্রাম্পের হোয়াইট হাউসেও হানা দিল ভয়ংকর করোনা

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সরকারি কার্যালয় ও বাসভবনও করোনার নাগাল থেকে বাঁচতে পারল না। প্রথমবারের মতো সেখানেও খোঁজ মিলেছে করোনা আক্রান্ত রোগীর। এর মধ্য দিয়ে হোয়াইট হাউজও অনিরাপদ হয়ে উঠল। ওই ব্যক্তি ভাইস-প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্সের এক কর্মী।শুক্রবার (২০ মার্চ) হোয়াইট হাউজের এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানানো হয়। খবর সিএনএন’র।পেন্সের মুখপাত্র কেটি মিলার ওই বিবৃতিতে জানান, শুক্রবার সন্ধ্যায় আমরা জানতে পারি যে, ভাইস প্রেসিডেন্টের অফিসের এক কর্মী করোনায় আক্রান্ত। টোবে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও ভাইস-প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স কেউই ওই ব্যক্তির সংস্পর্শে যায়নি।এর আগে করোনায় আক্রান্ত হতে পারেন ভেবে ট্রাম্পের পরীক্ষা করা হয়, কিন্তু তার নেগেটিভ আসে। তবে এখন পর্যন্ত ভাইস প্রেসিডেন্টের করোনা টেস্ট করা হয়নি।আমেরিকায় দিন দিন করোনার প্রকোপ বাড়ছে। এ পরিস্থিতিতে লোকজনকে ঘরে থাকতে অনুরোধ করা হচ্ছে। এখন পর্যন্ত দেশটিতে অন্তত ২৬৪ জন করোনায় মারা গেছেন। আক্রান্ত হয়েছেন ১৯ হাজার ৬৫৮ মানুষ।

ভয়ানক খুনের শিকার দশম শ্রেণীর ছাত্রী=তারেক পাঠান, নরসিংদী প্রতিনিধি: নরসিংদীর পলাশে দশম শ্রেণীর এক মাদ্রাসার ছাত্রীকে মাথায় একাধিক আঘাত করে নির্মম ভাবে হত্যা করা হয়েছে। বুধবার (১৮ মার্চ) সকালে পলাশ থানা পুলিশ গজারিয়া মধ্যপাড়া এলাকায় নিহতের নিজ বাড়ী থেকে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় নিহতের দুই ভাই ও দুই বোনকে সন্দেহ জনক প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে পুলিশ। নিহত আফিয়া (১৬ ) পলাশ উপজেলার গজারিয়া মধ্যপাড়া গ্রামের আজাহার মিয়ার ছোট মেয়ে। সে গজারিয়া দাখিল মাদ্রাসার দশম শ্রেণীর ছাত্রী।পুলিশ, নিহতের স্বজন ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, গত কয়েক মাস আগে রাসেল নামে এক যুবকের সাথে প্রেমের সর্ম্পকে জড়িয়ে পরে আফিয়া। রাসেল আফিয়াকে বিয়ের করা জন্য আফিয়ার বাড়ীতে প্রস্তাব দেয়। কিন্তু রাসেল আগে থেকেই অন্য একটি মেয়েকে বিয়ে করার খবর জানতে পেরে আফিয়ার পরিবার এই সম্পর্ক মানতে পারছিল না। পরবর্তীতে আফিয়ার ব্যবহৃত মোবাইল ফোনটি তার বড় ভাই আলম গত একমাস যাবৎ তার নিজের কাছে রেখে দেয়।

মাঝে মধ্যে রাসেল ওই মোবাইলে ফোন দিলে ফোনটি আফিয়ার বড় ভাই আলম রিসিভ করত। এ নিয়ে আফিয়া ও তার পরিবারের মধ্য প্রায়ই ঝগড়া হত। ঘটনার দিন রাত মঙ্গলবার আফিয়ার সাথে তার দুই বোন ও একই ঘরের পাটিশন রুমে তার দুই ভাই শাখায়ত ও আলম ও দুই বোনের জামাই মোশারফ ও তারেক এক সাথেই ছিল।তবে আশপাশের বাড়ীর লোকজন জানায়, গভীর রাতে নিহতের পিতা আজাহার ও নিহতের মায়ের ডাক চিৎকারে আশপাশের বাড়ীর লোকজন ছুটে আসলে কিছুই হয়নি বলে নিহতের পরিবার থেকে জানানো হয়। পরর্বতীতে ভোর সকালে আবার নিহতের পরিবারে কান্নাকাটির শব্দ পেয়ে আশপাশের বাড়ীর লোকজন ছুটে আসলে পরিবার থেকে জানানো হয় ঘরের সিঁধ কেটে কে বা কারা ঘুমন্ত অবস্থায় আফিয়াকে তুলে নিয়ে হত্যা করে বাড়ীর পাশে ফেলে রেখে চলে যায়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য লাশ নরসিংদী সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করে। নিহত আফিয়ার মাথায় আঘাতের একাধিক চিহ্ন রয়েছে বলে জানায় পুলিশ।

তবে এলাকাবাসী বলছে এটি একটি পরিকল্পিত হত্যা কান্ড। এই ঘটনার খবর পুরো এলাকায় ছড়িয়ে পরলে সাধারন মানুষের মধ্যে, আতকং, উৎকন্ঠার ও উদ্বেগ দেখা দিয়েছে।এ দিকে এ হত্যাকাণ্ডে খবর পেয়ে নরসিংদীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) শাহেদ আহমেদ, পলাশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মোহাম্মদ নাসির উদ্দিনসহ বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকরা ঘটনারস্থল পরিদর্শন করেন। ওসি নাসির বলেন, এ হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটন ও খুনিদের গ্রেফতার করতে পুলিশ সব রকম চেষ্ঠা করছে। থানায় মামলা প্রক্রিয়াধিন রয়েছে।

About uzzal

Check Also

প্রশাসনকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে লক্ষ্মীপুরে চলছে অবাদে কোচিং ক্লাস

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে দেশে সব ধরণের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *